বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮  |   ৩০ °সে আপডেট : ২৯ নভেম্বর, ২০২১
ব্রেকিং নিউজ
  •   ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর সবুজ চত্বরে দেখা স্বপ্ন- সাতগ্রামবাসীর সেবার সুযোগ চান জোবায়ের
  •   অবশেষে অস্ট্রেলিয়ার হাতে ট্রফি
  •   আমাদের ভবিষ্যৎ নিয়ন্ত্রণ করবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স: শিক্ষামন্ত্রী
  •   তৃতীয় শ্রেনীর শিক্ষকেরা প্রথম শ্রেনীর মানুষ তৈরি করে
  •   বিশ্বনেতাদের প্রতিশ্রুতির বন্যা

প্রকাশ : ১৯ নভেম্বর ২০২১, ১০:২৬

আজ আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস

'নারী ও পুরুষের সম্পর্ক আরও ভাল হোক'

নিজস্ব প্রতিবেদক
আজ আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস- 'নারী ও পুরুষের সম্পর্ক আরও ভাল হোক'

সারা বিশ্বব্যাপী পুরুষদের মধ্যে লিঙ্গ ভিত্তিক সমতা, বালক ও পুরুষদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করা এবং পুরুষের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তুলে ধরার প্রধান উপলক্ষ হিসেবে প্রতি বছরের ১৯ নভেম্বর এই দিবসটি পালন করে আসছে।

এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো, 'নারী ও পুরুষের সম্পর্ক আরও ভাল হোক'

রুষ দিবস পালনের প্রস্তাব প্রথম করা হয় ১৯৯৪ সালে। তবে ইতিহাস বেশ পুরোনো। ১৯২২ সাল থেকে সোভিয়েত ইউনিয়নে পালন করা হতো রেড আর্মি অ্যান্ড নেভি ডে। এই দিনটি পালন করা হতো মূলত পুরুষদের বীরত্ব আর ত্যাগের প্রতি সম্মান জানিয়ে।

২০০২ সালে দিবসটির নামকরণ করা হয় ‘ডিফেন্ডার অফ দ্য ফাদারল্যান্ড ডে’। রাশিয়া, ইউক্রেনসহ তখনকার সময়ে সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোতে এই দিবসটি পালন করা হতো। বলা যায়, নারী দিবসের অনুরূপভাবেই দিবসটি পালিত হয়। ষাটের দশক থেকেই পুরুষ দিবস পালনের জন্য লেখালেখি চলছে। ১৯৬৮ সালে আমেরিকান সাংবাদিক জন পি হ্যারিস নিজের লেখায় এ দিবসটি পালনের গুরুত্ব তুলে ধরেন।

নব্বই দশকের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও মাল্টায় কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ফেব্রুয়ারিতে পুরুষ দিবস পালনের জন্য বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। যদিও অনুষ্ঠানগুলো খুব একটা প্রচার পায়নি। অংশগ্রহণও ছিল কম। পরবর্তী সময়ে ১৯ নভেম্বর পুরো বিশ্বে পুরুষ দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

দিবসটি উদযাপনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলোঃ

  • পুরুষ ও বালকদের স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি;
  • নারী-পুরুষের লৈঙ্গিক সম্পর্ক উন্নয়ন বিষয়ক প্রচারণা;
  • নারী-পুরুষের লৈঙ্গিক সাম্যতার প্রচার;
  • পুরুষদের মধ্যে ইতিবাচক আদর্শ চরিত্রের গুরুত্ব তুলে ধরা;
  • পুরুষ ও বালকদের নিয়ে গড়ে ওঠা বিভিন্ন সংস্কার ও কুসংস্কারের বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরী;
  • পুরুষ ও বালকদের অর্জন ও অবদানকে উদ্‌যাপন;
  • সমাজ, পরিবার, বিবাহ ও শিশু যত্নের ক্ষেত্রে পুরুষ ও বালকদের অবদানকে তুলে ধরা।

বাংলাদেশে ও দিবস টি বিভিন্ন ভাবে উদযাপন হয়ে আসছে। পুরুষদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এই দিনটি বিশেষভাবে পালন করা হয়।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত